Anudhyan Mass Communication and Journalism
University of Rajshahi
A practice news portal of Department of Mass Communication & Journalism of University of Rajshahi
শিরোনাম
পরীক্ষার সাত মাস পরেও ফল প্রকাশ না হওয়ার প্রতিবাদে অবস্থান কর্মসূচি পালন করেছে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের শিক্ষার্থীরা।গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের শিক্ষাক্রম বিষয়ে আলোচনারাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের একাডেমিক নিউজলেটার বিদ্যাবার্তা’র দ্বিতীয় সংখ্যা প্রকাশিত হয়েছেতিস্তা নদীতে খনন ও বাঁধ নির্মাণের দাবি জানিয়েছে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যয়নরত রংপুর বিভাগের শিক্ষার্থীরারাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০১৯-২০ শিক্ষাবর্ষে স্নাতক (সম্মান) প্রথম বষের্র ভর্তি-পরীক্ষা আগামী ২০-২২ অক্টোবর অনুষ্ঠিত হবে

টেলিভিশন প্রোডাকশন প্রশিক্ষণ কর্মশালা অনুষ্ঠিত

অনুধ্যান

প্রকাশিত : ০৮:৪০ পিএম, ২ মার্চ ২০১৭ বৃহস্পতিবার

সমাপনী অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখছেন বিভাগের শিক্ষক ড. প্রদীপ কুমার পাণ্ডে

সমাপনী অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখছেন বিভাগের শিক্ষক ড. প্রদীপ কুমার পাণ্ডে

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগে মাসব্যাপী টেলিভিশন প্রোডাকশন কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়েছে। জার্মানির ডয়চে ভেলে একাডেমি ও বিভাগের যৌথ উদ্যোগে আয়োজিত কর্মশালাটি ২২ নভেম্বর শুরু হয়ে ১৮ ডিসেম্বর সনদ বিতরণের মাধ্যমে শেষ হয়। এতে দুই দফায় এমএসএস-২০১৪ ব্যাচের ৩০ জন শিক্ষার্থী অংশগ্রহণ করেন।

কর্মশালাটিতে প্রশিক্ষণ দেন জার্মানির টমাস রেহেরম্যান এবং পিটার বার্কনার। তাঁরা ক্যামেরার নানাবিধ ব্যবহার শেখানোর পাশাপাশি ভিডিও ক্যামেরার যাবতীয় বিষয়ও শিক্ষার্থীদের হাতে-কলমে দেখিয়ে দেন।

এ কর্মশালায় অংশগ্রহণকারী শিক্ষার্থীদের মধ্যে একজন সরোজ কুমার বিশ্বাস বলেন, ‘এ ধরনের প্রশিক্ষণ কর্মশালা আমাদের ইলেকট্রোনিক মিডিয়ার বিষয়ে হাতে-কলমে জ্ঞানদানসহ দক্ষতা বৃদ্ধি করে। এজন্য প্রতিবছর এ ধরনের কর্মশালা আয়োজন করা উচিত। অন্য এক শিক্ষার্থী আলিমা আঁখি বলেন, ‘আমরা বিভাগে শুধু তত্ত্বীয় বিষয় শিখি। এমন প্রশিক্ষণ আমাদের ব্যবহারিক দক্ষতা বাড়াবে। এর মাধ্যমে আমরা মিডিয়াতে গিয়ে সহজে কাজ করতে পারব বলে আশা করছি।’

কর্মশালায় ব্যবহারিক কাজে ব্যস্ত প্রশিক্ষণার্থীরা

এ বিষয়ে গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের সাবেক সভাপতি তানভীর আহমদ বলেন,‘ আমাদের বিভাগে শিক্ষার্থীদের তত্ত্বীয় বিষয় বেশি শেখানো হয়। কিন্তু তাদের ব্যবহারিক বিষয়টা শেখানো জরুরী। ব্যবহারিক বিষয়টা শেখানোর জন্য প্রয়োজনীয় যন্ত্রপাতি আমাদের নেই। এজন্য আমরা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে আলাদা কোনো বাজেট পাই না। তাই এ ধরনের প্রশিক্ষণ কর্মশালার মাধ্যমে শিক্ষার্থীরা হাতে কলমে শেখার সুযোগ পাচ্ছে। এজন্য  আমরা চেষ্টায় আছি যাতে প্রতি বছর প্রত্যেক ব্যাচের জন্য এমন কর্মশালার আয়োজন করা যায়। যেন তারা মিডিয়া বাজারে আরো অগ্রাধিকার পেতে পারে।’