Anudhyan Mass Communication and Journalism
University of Rajshahi
A practice news portal of Department of Mass Communication & Journalism of University of Rajshahi
শিরোনাম
মার্কেটিং বিভাগে শিক্ষাবৃত্তির জন্য ৫০ লাখ টাকা অনুদান দিয়েছেন বিভাগের সাবেক শিক্ষার্থী মাহবুবুল আলম রাজাবর্ণিল ও বিচিত্র আয়োজনে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে নববর্ষ ১৪২৬ উদযাপিত হয়েছেশেষ হলো সপ্তাহব্যাপী ডেটা জার্নালিজম কর্মশালা‘ ডেটা জার্নালিজম ইন নিউজরুম: হাউ টু ইউজ ডেটা ফর এ গুড স্টোরি‘ কর্মশালার পঞ্চম দিনে শিক্ষার্থীরা অনলাইন সংবাদ-সাইট থেকে ডেটা সংগ্রহ, ডেটা তৈরি এবং সে ডেটা আবার নতুন রূপে উপস্থাপন করার কৌশল শিখেছেন

চারুকলা প্রদর্শনীতে নান্দনিকতার সমাহার

আতিকুর রহমান

অনুধ্যান

প্রকাশিত : ১১:১২ পিএম, ২ মার্চ ২০১৭ বৃহস্পতিবার

চারুকলা প্রদর্শনীতে নান্দনিকতার সমাহার

চারুকলা প্রদর্শনীতে নান্দনিকতার সমাহার

চারদিকে সবুজের সমারোহ। হরেক রকম বৃক্ষ- কোনোটি ছোট, কোনোটি বড়। মাঝে এক চিলতে পায়ে হাটার কাঁচা রাস্তা। একটুখানি গাছের ছায়া আবার গাছের ফাঁক গলে বেরিয়ে আসা সূর্যের আলোও আছে। নিচে পড়ে আছে ঝরাপাতা। নিসর্গের যেন এক জীবন্ত প্রতিচ্ছবি। প্রথম দেখায় আলোকচিত্র মনে হলেও আসলে এটি চারুশিল্পীর তুলির আঁচড়ে আঁকা শিল্পকর্ম।

এমনি নান্দনিক বিভিন্ন শিল্পকর্মের সমাহার ঘটেছিল রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের বার্ষিক চারুকলা প্রদর্শনীতে। নবীন শিল্পীদের বৈচিত্রময় এসব শিল্পকর্ম উপভোগ করেছেন দর্শনার্থীরা।

গত ২৯ ডিসেম্বর থেকে ৬ জানুয়ারি পর্যন্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলা অনুষদে চলে নয় দিনব্যাপী এ চারুকলা প্রদর্শনী। চারুকলা অনুষদ ভবনের ছয়টি কক্ষের দেয়ালে শোভা পায় শিক্ষার্থীদের এসব শিল্পকর্ম। মেঝেতে সাজানো হয় ভাস্কর্য ও মৃৎশিল্প। এসব শিল্পকর্ম দেখে মুগ্ধ শিক্ষার্থীরা। শিল্পাচার্য জয়নুল আবেদিনের ১০২তম জন্মবার্ষিকীতে নয় দিনব্যাপী এ প্রদর্শনীর উদ্বোধন করেন উপমহাদেশের প্রখ্যাত কথাসাহিত্যিক অধ্যাপক হাসান আজিজুল হক।

শিল্পকর্ম দেখতে আসা বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিসংখ্যান বিভাগের শিক্ষার্থী হাসিব আল মামুন বলেন, ‘প্রদর্শনীতে স্থান পাওয়া শিল্পকর্মগুলো সবই এখানকার শিক্ষার্থীদের তৈরী। শিক্ষার্থীদের এমন কাজ আসলেই প্রশংসার দাবি রাখে।’

আরেক দর্শনার্থী অর্থনীতি বিভাগের শিক্ষার্থী রাইসা তাবাস্সুম বলেন, ‘প্রদর্শনী ঘুরতে গিয়ে কিছু কাজ দেখে একদম ছোটবেলায় ফিরে গেছি। এসব শিল্পকর্মের মাধ্যমে ফুটে উঠেছে আমাদের সমাজ, সংস্কৃতি, পরিবেশ, নিসর্গতাসহ বিভিন্ন বিষয়। যা সত্যিই মনোমুগ্ধকর।’

প্রদর্শনীর শিল্পকর্মের মাধ্যমে ফুটে উঠেছে নৈসর্গিক সবুজ প্রকৃতি, নারীর প্রতি সামাজিক বৈষম্য, সমাজে আকস্মিকভাবে বাড়তে থাকা শিশু সহিংসতা, সংগ্রামী মানুষের জীবন, জীবনের শেষ স্পন্দনসহ পরিবেশ প্রতিবেশ থেকে নেয়া বিভিন্ন চিত্র।

প্রদর্শনীতে চারুকলা অনুষদের তিন বিভাগের ২৮৮ শিক্ষার্থীর ৩৭৯টি শিল্পকর্ম স্থান পায়। এগুলোর মধ্যে ৭১টি চিত্রকলা, ৬০টি প্রাচ্যকলা, ছাপচিত্র ৫০টি, ডিজাইন ৫৪টি, কারুশিল্প ৪৭টি, শিল্পকলার ইতিহাস ৮টি, মৃৎশিল্প ৫৪টি এবং ভাস্কর্য রয়েছে ৩৫টি। শিল্পকর্মের মাধ্যম হিসেবে ব্যবহার করা হয়েছে পেন্সিল, উড কার্ভিং, উড কোলাজ, জলরং, তেলরং, এ্যাক্রেলিক, পোস্টার কালার, সরাভাঙ্গা ও ফাউন্ড অবজেক্ট।